Text size A A A
Color C C C C
পাতা

অফিস সম্পর্কিত

প্রায় ১০,০০০ বর্গকিলোমিটার আয়তনের পৃথিবীর বৃহত্তম নিরবিচ্ছিন্ন জোয়ারধৌত ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবন বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অংশের খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা জেলা এবং ভারতের পশ্চিম বঙ্গ রাজ্যের  চব্বিশ পরগণা জেলায় অবস্থিত। সমগ্র সুন্দরবনের প্রায় ৬,০১৭ বর্গকিলোমিটার বাংলাদেশে স্থিত। বন সংরক্ষকের দপ্তর, খুলনা সার্কেল হতে বাংলাদেশস্থ সুন্দরবনের প্রশাসনিক কার্যক্রম নিয়ন্ত্রিত হয়। 

 

১৮৭৪-৭৫ খ্রিস্টাব্দে সুন্দরবন বিভাগ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সুন্দরবনে সংরক্ষিত বন ব্যবস্থাপনার গোড়াপত্তন হয়। ১৮৬৫ খ্রিস্টাব্দের বন আইনের ২ নং ধারা অনুযায়ী ১৫ ফেব্রুয়ারি ১৮৭৫ তারিখে বর্তমান খুলনা এবং বাগেরহাট জেলাধীন সুন্দরবনের বনাঞ্চলকে সংরক্ষিত ঘোষণা করা হয়। ১ আগস্ট ১৮৭৬ তারিখে বর্তমান সাতক্ষীরা জেলাধীন সুন্দরবনের বনাঞ্চলকে সংরক্ষিত ঘোষণা করা হয়। অতঃপর ১৮৭৮ সালের বন আইনের ৩৪ নং ধারা মোতাবেক পূর্বে সংরক্ষিত বন হিসেবে ঘোষিত খুলনা, বাগেরহাট এবং সাতক্ষীরা জেলাধীন সুন্দরবনের বনাঞ্চলের সীমানা ২৩ জানুয়ারি ১৮৭৯ তারিখে পুনঃনির্ধারণ পূর্বক গেজেট প্রকাশিত হয়। সর্বশেষ ১৯১৫ খ্রিস্টাব্দের ৮ ফেব্রুয়ারি তারিখে গেজেটের মাধ্যমে সুন্দরবনের সংরক্ষিত বনাঞ্চলের সীমানা পুনঃনির্ধারণ করা হয়।

 

পূর্বে সুন্দরবনসহ সমগ্র উপকূলীয় এলাকার বনাঞ্চল ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব ‘প্লান্টেশন সার্কেল’ এর উপর অর্পিত ছিল। ১৯৯৩ খ্রিস্টাব্দে প্লান্টেশন সার্কেল বিভক্ত হয়ে যায় এবং সুন্দরবনের সংরক্ষিত বনাঞ্চল ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব নবপ্রতিষ্ঠিত ‘খুলনা সার্কেল’ এর উপর ন্যস্ত করা হয়। তৎকালে সমগ্র সুন্দরবনের সংরক্ষিত বনাঞ্চল ‘সুন্দরবন বিভাগ’ এর নিয়ন্ত্রণে ছিল। ২০০১ খ্রিস্টাব্দে তা বিভক্ত করে সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগ ও সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগ প্রতিষ্ঠা করা হয়। সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগের সদর দপ্তর খুলনায় এবং সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের সদর দপ্তর বাগেরহাটে অবস্থিত। বন সংরক্ষকের দপ্তর, খুলনা সার্কেল উক্ত বন বিভাগ দুইটির প্রশাসনিক কার্যক্রম নিয়ন্ত্রণ করে। বন সংরক্ষকের দপ্তর বয়রাস্থ খুলনা পাবলিক কলেজের পশ্চিম সীমানা ঘেঁষে অবস্থিত।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)